Home > শিক্ষাঙ্গন > কুয়েটের ৮ ছাত্র বহিষ্কারসহ ২৭ শিক্ষার্থীর সাজা

কুয়েটের ৮ ছাত্র বহিষ্কারসহ ২৭ শিক্ষার্থীর সাজা

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ছাত্রদের মধ্যে সংষর্ষের ঘটনায় ২৭ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এর মধ্যে ৮ ছাত্রকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার, ৬ ছাত্রকে আর্থিক জরিমানা ও ১৩ জনকে সতর্কীকরণ নোটিশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রশৃঙ্খলা কমিটি।

কুয়েটের জনসংযোগ কর্মকর্তা মনোজ কুমার মজুমদার মঙ্গলবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, উল্লিখিত ঘটনায় সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে কুয়েট কর্তৃপক্ষ এ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

শাস্তিপ্রাপ্তরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের অমর একুশে হলের ছাত্র আল আরাফাত আবির (রোল-১৬০৩০৪৩), রাহাত আহম্মেদ ইমন (রোল-১৬২১০২২), শাহীন আলমকে (রোল-১৬০৫১০০)। ৬ টার্মের জন্য বহিষ্কার; একই হলের কাজী আকিব জাভেদ (রোল-১৫০৭০৬০), তরিকুল ইসলাম স্বরণ) (রোল-১৭০৯০২১) ৪ টার্মের জন্য বহিষ্কার; রাশাদ রাফিদ অর্ণব (রোল-১৫১১০৪৮) ও সুদীপ বিশ্বাস (রোল-১৫১১০৫৭)।

২ টার্মের জন্য বহিষ্কার; নাসির উদ্দিনকে (রোল-১৬২১০৩২) ১ টার্মের জন্য বহিষ্কার এবং উল্লিখিত সবাইকে ছাত্র প্রতিনিধিত্বমূলক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত না হওয়া, পরবর্তীতে অপরাধের প্রমাণ পেলে কঠোর শাস্তি, হলের ছিট বাতিল ও অভিভাবকের মুচলেকা প্রদানের শাস্তি প্রদান করা হয়।

এছাড়া অমর একুশে হলের শোয়েব ইসলাম (রোল-১৫২৩০০১) ও মো. ফয়সাল (রোল-১৫১১০৩৬) ৩০ হাজার টাকা জরিমানা; ফজলুল হক হলের রাছিন জামান (রোল-১৫১৯০১২), আহসানুল আবেদিন (রোল-১৭১১০৪২), সৈকত দে (রোল-১৫১৯০২০) ১০ হাজার টাকা জরিমানা; অমর একুশে হলের রেদওয়ানুল আমিন (রোল-১৭১৯০১৯) ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং সবাইকে ছাত্র প্রতিনিধিত্বমূলক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত না হওয়া, পরবর্তীতে অপরাধের প্রমাণ পেলে কঠোর শাস্তি, অভিভাবকের মুচলেকা প্রদানের শাস্তি প্রদান করা হয়।

অমর একুশে হলের তিলক বড়ুয়া (রোল-১৬২৩০০২), তানভীর আহম্মেদ (রোল-১৭০৫০১৫), ফজলুল হক হলের নুর মোহাম্মাদ (রোল-১৬০৫০৮৮), গোলাম রাব্বি সিয়াম (রোল-১৭২৩০০৮), আমিনুল ইসলাম শিহাব (রোল-১৬০৫০৭৪), অনিকুর রহমান (রোল-১৭০৩১১৭), মুহিব্বিন হোসেন সরদার (রোল-১৭০৭০৮১), মো. কাউসার (রোল-১৮১৯০০৩), শরিফুল ইসলাম (রোল-১৮১৯০০৯), সলিম আবেদিন ফাহিম (রোল-১৮০৯০৫৮), তানভীর রহমান (রোল-১৬০৩০৭৮), ফাহিম ফয়সার অর্ণব (রোল-১৬০৫০৯০) ও অমর একুশে হলের নাফসি আহমেদ (রোল-১৭১৯০৩১) পরবর্তীতে অপরাধের প্রমাণ পেলে কঠোর শাস্তি ও অভিভাবকের মুচলেকা প্রদানের শাস্তি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে মাঠে এবং পরবর্তীতে অমর একুশে হল ও ফজলুল হক হলের ছাত্রদের মধ্যে সংষর্ষের ঘটনা ঘটে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ