Home > শিক্ষাঙ্গন > চট্টগ্রাম বোর্ডে সেরাদের শীর্ষে কলেজিয়েট স্কুল

চট্টগ্রাম বোর্ডে সেরাদের শীর্ষে কলেজিয়েট স্কুল

নিজস্ব প্রতিনিধি
জনতার বাণী,
চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বোর্ডের
অধীনে এসএসসি পরীক্ষার
ফলাফলে সবার শীর্ষে
রয়েছে চট্টগ্রাম
কলেজিয়েট স্কুল। দ্বিতীয়
অবস্থানে ডা. খাস্তগীর
সরকারি বালিকা উচ্চ
বিদ্যালয়। তৃতীয় অবস্থানে
রয়েছে ফৌজদারহাট
ক্যাডেট কলেজ। চট্টগ্রাম
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক
শিক্ষা বোর্ড সূত্রে এসব তথ্য
জানা গেছে।
এদিকে এ বছর চট্টগ্রাম
শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার
ও জিপিএ-৫ পাওয়া
শিক্ষার্থীর সংখ্যা দুটোই
কমেছে। চট্টগ্রাম বোর্ডে
এবার পাসের হার ৮২.৭৭
শতাংশ।
গতবারের চেয়ে পাসের
হার কমেছে ৮.৬৩ শতাংশ।
২০১৪ সালে পাসের হার
ছিল ৯১.৪০ শতাংশ। ২০১৩
সালে ছিল ৮৮.০৪ শতাংশ।
গতবারের তুলনায় জিপিএ-৫
প্রাপ্ত শিক্ষার্থী কমেছে
তিন হাজার ৭৬৮ জন। এবার
চট্টগ্রাম বোর্ডে জিপিএ-৫
পেয়েছে সাত হাজার ১১৬
জন শিক্ষার্থী। গতবার এ
সংখ্যা ছিল দশ হাজার ৮৮৪।
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক
শিক্ষাবোর্ড চট্টগ্রামের
পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক
মাহবুব হাসান বলেন,
‘হরতাল-অবরোধে বারবার
পরীক্ষা পেছানোর
কারণে শিক্ষার্থীদের
পড়াশোনার স্বাভাবিক
গতি ব্যাহত হয়েছে।
এছাড়া পরীক্ষার্থীরা
উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা ও
মানসিকভাবে চাপের
মধ্যে পরীক্ষায় অংশ
নিয়েছিল। যার প্রভাব
ফলাফলে পড়েছে।’
চট্টগ্রামের সেরা ২০
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান
এবার এসএসসি পরীক্ষার
ফলাফলে এবার চট্টগ্রাম
বোর্ডে শীর্ষস্থান দখল
করেছে চট্টগ্রাম
কলেজিয়েট স্কুল। পরীক্ষায়
অংশ নেওয়া ৪০৩ জন
শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩৭৭ জন
জিপিএ ৫ পেয়েছে। আর
উত্তীর্ণ হয়েছে শতভাগ।
২৮৫ জন জিপিএ ৫ পাওয়া
শিক্ষার্থী নিয়ে দ্বিতীয়
অবস্থানে আছে নগরের ডা.
খাস্তগীর সরকারি
বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
স্কুলটি থেকে পরীক্ষায়
অংশ নেয় ৩৩৪ জন
শিক্ষার্থী। আর
সীতাকুণ্ডের ফৌজদারহাট
ক্যাডেট কলেজের ৫৫ জন
শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ
নিয়ে ৫৫ জনই জিপিএ ৫
পেয়েছে। ফলাফলে
বোর্ডে প্রতিষ্ঠানটি
তৃতীয় অবস্থানে।
৯৫.৯৭ পয়েন্ট পেয়ে
এবারের এসএসসি পরীক্ষার
ঘোষিত ফলাফলে চট্টগ্রাম
বোর্ডে শীর্ষস্থানে
রয়েছে চট্টগ্রাম
কলেজিয়েট স্কুল। এ নিয়ে
টানা তিনবার শীর্ষস্থান
ধরে রেখেছে ঐতিহ্যবাহী
কলজিয়েট স্কুল।
এছাড়া ৯১ দশমিক ১৬ পয়েন্ট
পেয়ে এবার দ্বিতীয়
অবস্থানে রয়েছে ডা.
খাস্তগীর সরকারি
বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও
৯১ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয়
অবস্থানে রয়েছে
ফৌজদারহাট ক্যাডেট
কলেজ।
প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধিত
শিক্ষার্থীর সংখ্যার মধ্যে
নিয়মিত পরীক্ষার্থীর
শতকরা হার, শতকরা পাশের
হার, জিপিএ-৫ প্রাপ্তির
সংখ্যা, মোট জিপিএ’র গড়
এবং অংশগ্রহণকারী মোট
পরীক্ষার্থীর পয়েন্ট
মিলিয়ে মোট ৫টি
ক্যাটাগরিতে ১০০
পয়েন্টের উপর মার্কিং
করে সেরা ২০টি
প্রতিষ্ঠানের ক্রম নির্ধারণ
করা হয়েছে। এরপরে
রয়েছে যথাক্রমে—
৪. বাংলাদেশ মহিলা
সমিতি বালিকা উচ্চ
বিদ্যালয় (৮৮.৬৫), ৫.
ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল
অ্যান্ড কলেজ (৮৭.৮০), ৬.
সরকারি মুসলিম উচ্চ
বিদ্যালয় (৮৭.৪৪), ৭.
ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল
(৮৬.৪৪), ৮. চট্টগ্রাম সরকারি
উচ্চ বিদ্যালয় (৮৫.৯৫), ৯.
সিলভার বেলস গার্লস স্কুল
(৮৫.৫৮), ১০. চট্টগ্রাম সরকারি
বালিক উচ্চ বিদ্যালয়
(৮৫.০১), ১১. নাসিরাবাদ
সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়
(৮৩.৬৯), ১২. চট্টগ্রাম
পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ
(৮১.৫৬), ১৩. নৌবাহিনী
হাইস্কুল এন্ড কলেজ (৮১.২৯),
১৪. সাউথ পয়েন্ট স্কুল এন্ড
কলেজ (৮০.৬৩), ১৫. অপর্ণা
চরণ সিটি কর্পোরেশন
গার্লস হাইস্কুল (৮০.৫২), ১৬.
কক্সবাজার সরকারি
বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়
(৭৬.৮২), ১৭. কাফকো স্কুল এন্ড
কলেজ (৭৬.৭২), ১৮. সেন্ট
স্কলাস্টিকা গার্লস স্কুল
(৭৬.১৫), ১৯. বাকলিয়া
সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়
(৭৫.৯৯) ২০. সেন্ট প্লাসিড
হাইস্কুল (৭৫.৩৭)।
ফলাফল ঘোষণা উপলক্ষে
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক
শিক্ষাবোর্ড আয়োজিত
সংবাদ সম্মেলনে পরীক্ষা
নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মাহবুব
হাসান বলেন, ‘বছরের শুরু
থেকে রাজনৈতিক
অস্থিরতায় বারবার
পরীক্ষা পেছানোর
কারণে শিক্ষার্থীদের
পড়াশোনার স্বাভাবিক
গতি ব্যাহত হয়েছে। এসব
কারণে পরীক্ষার্থীরা
মানসিকভাবে চাপে ছিল।
ফলে পরীক্ষার ফলাফলে এর
প্রভাব পড়েছে।’

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ