Home > শিক্ষাঙ্গন > আগামী বছর সেরা প্রতিষ্ঠান বলে কিছু থাকবে না: শিক্ষামন্ত্রী

আগামী বছর সেরা প্রতিষ্ঠান বলে কিছু থাকবে না: শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
জনতার বাণী,
ঢাকা: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল
ইসলাম নাহিদ বলেছেন,
এবার শেষবারের মত সেরা
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাছাই
করা হয়েছে। আগামী বছর
থেকে সেরা প্রতিষ্ঠান
বলে কিছু থাকবে না।
তিনি শনিবার দুপুরে
সচিবালয়ে এসএসসি ও
সমমানের পরীক্ষার ফল
প্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত
সংবাদ সম্মেলনে একথা
বলেন।
মন্ত্রী বলেন, আগামী বছর
থেকে এসএসসি ও সমমানের
পরীক্ষায় সেরা-২০ (টপ-২০)
বা সেরা-১০ (টপ-১০)
বিদ্যালয় বলে কোনো
বিষয় থাকবে না।
তিনি বলেন, কিছু
প্রতিষ্ঠান এ টপ-২০ ও টপ-১০
এর তালিকায় থাকার জন্য
অনৈতিক পন্থা অবলম্বন করে
থাকে। এজন্য আগামী বছর
থেকে সেরা প্রতিষ্ঠানের
কোনো তালিকা থাকবে
না।
বর্তমানে নিবন্ধিত
শিক্ষার্থীদের মধ্যে
নিয়মিত পরীক্ষার্থীর
শতকরা হার, শতকরা পাসের
হার, মোট পরীক্ষার্থীর
মধ্যে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির
হার, পরীক্ষার্থীর সংখ্যা
ও প্রতিষ্ঠানের গড় জিপিএ
মূল্যায়নের ভিত্তিতে
প্রতিটি বোর্ডে সেরা ২০
প্রতিষ্ঠানের তালিকা
করা হয়।
একই মানদণ্ডের ভিত্তিতে
জেলাভিত্তিক সেরা
১০টি করে প্রতিষ্ঠানের
তালিকা করা হয়ে থাকে।
সংবাদ সম্মেলনে
শিক্ষকদের ‘অনৈতিক’
কার্যকলাপ ঠেকাতে
পাবলিক পরীক্ষায়
নৈর্ব্যক্তিক (এমসিকিউ)
পদ্ধতি তুলে দেওয়ার
চিন্তা-ভাবনা হচ্ছে বলেও
জানান মন্ত্রী।
তিনি বলেন, অসৎ উপায়ে
এমসিকিউতে ৪০ নম্বর
পাওয়া সহজ হয়ে যাচ্ছে।
আগামীতে এই পদ্ধতি
রাখা হবে কি না তা
নিয়ে শিক্ষাবিদসহ
সংশ্লিষ্টদের আলোচনা
করে সিদ্ধান্ত নেওয়া
হবে।
‘কতিপয়’ শিক্ষক সিলগালা
করা এমসিকিউ প্রশ্ন
পরীক্ষা শুরুর আগেই হলের
বাইরে পাঠিয়ে দেওয়ায়
শিক্ষার্থীরা সহজেই পুরো
নম্বর পেয়ে যাচ্ছে বলেও
স্বীকার করেন
শিক্ষামন্ত্রী।
এমনই কিছু উদাহরণ তুলে ধরে
তিনি বলেন, বগুড়ার আমতলী
বিদ্যালয় এবং ঢাকার বি এ
এফ শাহীন স্কুল অ্যান্ড
কলেজে এমসিকিউ প্রশ্ন
বাইরে পাঠানোর প্রমাণ
পাওয়া গেছে।
নাহিদ বলেন, এই শিক্ষা
প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকসহ
সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে
ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
কাউকেই ছাড় দেব না।
যারা এসব কাজে জড়িত
থাকবেন তাদের বিরুদ্ধে
কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
কতিপয় শিক্ষকদের এমন
কর্মকাণ্ড পুরো শিক্ষক
সমাজের উপর নেতিবাচক
প্রভাব পড়বে উল্লেখ করে
তিনি বলেন, এরা প্রকৃত
শিক্ষক নয়, এরা ধান্দাবাজ।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ