Home > রাজনীতি > নির্বাচন : সরকারের ভূমিকা তুর্কি প্রধানমন্ত্রীকে জানাল বিএনপি

নির্বাচন : সরকারের ভূমিকা তুর্কি প্রধানমন্ত্রীকে জানাল বিএনপি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : আগামী একাদশতম জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ কী অবস্থানে রয়েছে, তা তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিনকে ব্যাখ্যা করেছে বিএনপি। একইসঙ্গে সে নির্বাচনে বিএনপির ভূমিকা কী থাকছেও তা অবহিত করা হয়েছে বাংলাদেশ সফররত তুর্কি প্রধানমন্ত্রীকে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কারওয়ান বাজারে হোটেল সোনারগাঁওয়ে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের বৈঠকের বিষয়বস্তু জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এর আগে সন্ধ্যা ৬টার কিছু সময় পর দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল তুরস্কের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসেন। ৪৫ মিনিট স্থায়ী ওই বৈঠক শেষে গণমাধ্যমের সামনে আসেন বিএনপি মহাসচিব।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের রাজনীতি কেমন চলছে তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আসন্ন নির্বাচনে কী অবস্থা দাঁড়াবে, সে নির্বাচনে আমাদের ভূমিকা কী থাকবে, সরকারের ভূমিকা কেমন আছে এবং দেশ কেমন চলছে। একটা সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সরকার কী ভূমিকা পালন করছে, এই বিষয়গুলো নিয়ে পারস্পরিক আলোচনা হয়েছে।’

নির্বাচন নিয়ে আলোচনায় আপনাদের ভূমিকার কথা কী বলেছেন, জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের বক্তব্য আমরা তাদের বলেছি। তারা তাদের মতামত দিয়েছেন, এই পর্যন্তই।’

রোহিঙ্গা সংকটের শুরু থেকে তুরস্কের ভূমিকার প্রশংসা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে এসেছেন মূলত রোহিঙ্গা সংকট স্বচক্ষে দেখার জন্য এবং রোহিঙ্গা মুসলমানদেরকে কীভাবে দেশে সম্মান ও নিরাপত্তার সঙ্গে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় সেজন্য। বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কথা বলতে এসেছেন তিনি। প্রথম থেকেই তুরস্ক সরকার এবং সেদেশের জনগণ রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে অত্যন্ত সহানুভূতিশীল।’

তিনি বলেন, ‘তারা (রোহিঙ্গা মুসলমান) যেন নিরাপদে দেশে ফিরে যেতে পারে, সেজন্য প্রথম থেকেই কাজ করছে তুরস্ক। তাদের যে ফার্স্ট লেডি তিনি প্রথমে এখানে এসেছেন। তারপরেই কিন্তু বিষয়টি গোটা বিশ্বে নাড়া দিয়েছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ওনারা মনে করেন রোহিঙ্গাদের সম্মানের সঙ্গে তাদের দেশে নিজ বাসভবনে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে হবে এবং একটি স্থায়ী সমাধান করা প্রয়োজন। এজন্য অন্যান্য দেশ ও বিশ্ব সংস্থাগুলোর সঙ্গে তারা যোগাযোগ রক্ষা করছেন।’

জেরুজালেম সংকট নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না, জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তারা (তুরস্ক) এই বিষয়ে পুরোপুরি ফিলিস্তিনের সঙ্গে আছেন।’

বৈঠকে বিএনপি নেতাদের মধ্যে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ উপস্থিত রয়েছেন।

দুই দিনের এই সরকারি সফরে সোমবার রাতে ঢাকা পৌঁছান তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার সকালে তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে গিয়ে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী। রাতে তার সম্মানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া নৈশভোজে অংশ নেবেন তিনি। সফর শেষে বুধবারই কক্সবাজার থেকে তুরস্কের উদ্দেশে রওনা হওয়ার কথা রয়েছে তার।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Translate »
শিরোনামঃ