Home > তথ্য ও প্রযুক্তি > গুগলের নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’

গুগলের নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : গুগল ‘ফাইলস গো’ নামে নতুন একটি অ্যাপ নিয়ে এসেছে। এই অ্যাপের মাধ্যমে খুব সহজে দ্রুততম সময়ে ফাইল খুঁজে বের করা, ডিলিট করা বা মুছে ফেলা এবং তা অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করা যাবে।

বিশ্বব্যাপী আজ থেকে গুগল প্লে স্টোরে ‘ফাইলস গো’ অ্যাপটি পাওয়া যাবে। ডাউনলোড লিংক: goo.gl/8VhUuU। তবে এই অ্যাপ ডাউনলোড করতে হলে অ্যান্ড্রয়েড (ললিপপ) বা এর চেয়ে বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন অপারেটিং সিস্টেমের মোবাইল ফোন থাকতে হবে।

একই সঙ্গে গুগল ঘোষণা করেছে যে, শিগগির বাজারে আসার অপেক্ষায় থাকা অ্যান্ড্রয়েড ওরিও (গো এডিশন) মোবাইল ফোনেও ‘ফাইলস গো’ নামের অ্যাপটি ব্যবহার করা যাবে। নতুন এই স্মার্টফোন বিশ্ববাজারে আসবে ২০১৮ সালের শেষের দিকে।

এছাড়া নকিয়া মোবাইল, প্যানাসনিক, মাইক্রোম্যাক্স, লাভা, ইনটেক্স. কারবন মোবাইলস এবং জোলোর মতো কোম্পানিগুলো ২০১৮ সালে নতুন মডেলের যেসব স্মার্টফোন বাজারে ছাড়বে সেগুলোতে অবশ্য ‘ফাইলস গো’ অ্যাপটি হ্যান্ডসেটেই থাকবে। অর্থাৎ এসব হ্যান্ডসেটে গুগল প্লে স্টোর থেকে ‘ফাইলস গো’ অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে না।

বিশ্বের অনেক অঞ্চলেই মোবাইল ফোনের ফাইল ম্যানেজ করা বা তা ব্যবহার করতে গিয়ে বড় ধরনের সমস্যায় পড়েন। সে জন্য ‘ফাইলস গো’ অ্যাপ চালুর ফলে এখন থেকে এটির সাহায্যে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা খুব সহজেই ও দ্রুত তাদের ফাইলগুলো ম্যানেজ করতে অর্থাৎ নিজের পছন্দ ও চাহিদা অনুযায়ী ফাইল ব্যবহার বা তা নিয়ে স্বাচ্ছন্দ্যে কাজ করতে পারবেন। প্রতিদিনই দেশে দেশে লক্ষ-কোটি মানুষের মোবাইল ফোনে অপ্রত্যাশিত ও অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে নানা ধরনের ইমেজ বা ছবি, ভিডিও, অ্যাপস, ডকুমেন্টস এবং অফার আসে। এগুলো আসা যেন আর বন্ধ হয় না। যে কারণে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীরা কোনটি রাখবেন এবং কোনটি ডিলিট করবেন সেই সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

চারটি উপায়ে এই সমস্যার সমাধান দেবে ‘ফাইলস গো’ অ্যাপ:

* ফ্রিং আপ স্পেস বা জায়গা খালি করা : ‘ফাইলস গো’ অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড হ্যান্ডসেট ব্যবহারকারীদের কোন ফাইল রাখবেন, ডিলিট করবেন সেই পরামর্শ বা সমাধান দেয়। সেই সঙ্গে ফাইলস গো অব্যবহৃত বা অনাকাঙ্ক্ষিত ফাইল অ্যাপ, বৃহৎ আকারের ফাইল, ডুপ্লিকেট বা নকল ফাইল এবং লো বা কম রেজুলেশন সম্পন্ন ভিডিও ইত্যাদি ডিলিট করতে বা ফেলে দেওয়ার উপায় জানতে পারবেন অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীরা। ফাইলস গো অ্যাপে গুগলের সর্বাধুনিক মোবাইল ভিশন টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে, যা অনাকাঙ্ক্ষিত ও অপ্রত্যাশিত ফাইল, ইমেজ বা ছবি, ভিডিও, অ্যাপস, ডকুমেন্টস ও অফার ইত্যাদি চিহ্নিত করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। সব মিলিয়ে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীরা এই অ্যাপের মাধ্যমে নিজেদের মতো করে ফাইল ম্যানেজ করতে এবং তা ব্যবহার কারতে পারবেন।

* ফাইন্ডিং ফাইলস ফাস্টার বা দ্রুত ফাইল খুঁজে পাওয়া : ফাইলস গো অ্যাপ খুব দ্রুত স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইমেজ বা ছবি, ভিডিও, অ্যাপস, ডকুমেন্টস ও অন্যান্য অফার ইত্যাদি খুঁজে দেয়।

* ক্লাউডে ব্যাকআপ ফাইল : কোনো অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী যদি কোনো ফাইল স্থায়ীভাবে ডিলিট করা বা মুছে ফেলা নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে থাকে তখন তার জন্য করণীয় রয়েছে ফাইলস গো অ্যাপে। এক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড হ্যান্ডসেটে ব্যবহারকারী ওই গ্রাহককে ফাইল মেন্যুতে গিয়ে ওই ফাইল সিলেক্ট বা চিহ্নিত করে তা গুগল ড্রাইভ বা যেকোনো ক্লাউড স্টোরেজ অ্যাপে নিয়ে রাখতে পারবেন।

* অফলাইনে ফাইল শেয়ার : ফাইলস গো অ্যাপ ব্যবহারকারীরা নিজেদের অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে নিকটবর্তী অন্য যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড ফোনে সরাসরি ফাইল ট্রান্সফার বা স্থানান্তর করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে ফাইলের গোপনীয়তা বজায় থাকবে এবং ফাইলও খুব দ্রুত গতিতে (১২৫ এমবিপিএস পর্যন্ত) স্থানান্তর হবে। এ জন্য কোনো মোবাইল ডেটা ব্যবহার হবে না।

গুগল ফাইলস গো অ্যাপটি পরীক্ষা করতে গিয়ে দেখা গেছে, এটি ব্যবহার করলে প্রথম মাসে একেক জন অ্যান্ড্রয়েড হ্যান্ডসেটে ব্যবহারকারীর গড়ে ১ জিবি (গিগাবাইট) স্পেস সেভ হবে। বিস্তারিত জানতে ভিজিট: https://filesgo.google.com।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Translate »
শিরোনামঃ